Friday, July 30, 2021
Homeপ্রযুক্তিইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্য গোপনেই থাকবে'

ইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্য গোপনেই থাকবে’

নিজস্ব সংবাদদাতা : প্রাইভেসি পলিসির পরিবর্তনের জেরে কোনওভাবেই ইউজারদের ব্যক্তিগত মেসেজ ফাঁস হবে না। বরং আগের মতোই ‘এন্ড টু এন্ড এনক্রিপশন’-এর মাধ্যমে সমস্ত ধরণের চ্যাটের গোপনীয়তা বজায় রাখবে হোয়াটসঅ্যাপ।

ইউজারদের ব্যক্তিগত চ্যাট, গ্রুপ চ্যাট কিংবা ভয়েস কল কোনও কিছুই ফাঁস হওয়ার সম্ভাবনা নেই। সব অভিযোগের জবাব দিল হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। এমনকী অভিভাবক সংস্থা ফেসবুক-ও হোয়াটস্অ্যাপ গ্রাহকদের মেসেজ বা কল দেখতে পারবে না। কী কী ব্যাখ্যা দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ একনজরে দেখা যাক –

গ্রাহকদের ব্যক্তিগত কোনও মেসেজ পড়ে না হোয়াটসঅ্যাপ। কল করলে তা রেকর্ড করাও হয় না। একই নিয়ম মানে ফেসবুকও।

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী যারা মেসেজ ও কল করেন, তাঁদের অ্যাকাউন্টের তালিকা সুরক্ষিত রাখা হয়।

গ্রাহকদের কোনও কনট্যাক্ট নম্বর ফেসবুকের সঙ্গে শেয়ার করা হয় না।

মেসেজে কোনও লোকেশন লিখলে তা হোয়াটসঅ্যাপ পড়তে পারে না। গ্রাহকদের অবস্থান কোথায় সে ব্যাপারে নাক গলায় না হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুকের সঙ্গেও শেয়ার করা হয় না।

গ্রাহকরা চাইলে কোনও মেসেজ লুকিয়ে রাখতে পারেন বা সরিয়ে দিতে পারেন, সেক্ষেত্রে ‘ডিসঅ্যাপিয়ার’ অপশন আছে।

গ্রাহকরা তাঁদের নিজস্ব সব তথ্যই ডাউনলোড করে নিতে পারেন।
গত সপ্তাহে প্রাইভেসি পলিসি আপডেট করেছে সংস্থা। তার জেরেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক।

৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর হবে এই আপডেট। গ্রাহকদের পই পই করে বলে দেওয়া হয়েছে, এই নতুন পলিসির সবকটি টার্ম অ্যাকসেপ্ট করতেই হবে। না হলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হবে। এর আগে নতুন কোনও প্রাইভেসি পলিসি এলে তাতে বাছাই করার অপশন থাকত। গ্রাহকরা না চাইলে, তা এড়িয়ে যেতেও পারতেন।

কিন্তু এখন থেকে তা আর হবে না। সুরক্ষা নিয়ে কড়াকড়ি করছে হোয়াটসঅ্যাপ। ঝামেলার সূত্রপাত এখানেই। নতুন প্রাইভেসি টার্ম নিয়ে ইতিমধ্যেই কথা রটেছে, হোয়াটসঅ্যাপ নাকি গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্যে নজরদারি করছে।

এই খবর ছড়াতেই তড়ঘড়ি গ্রাহকদের একটা বড় অংশ হোয়াটসঅ্যাপ ছেড়ে সিগন্যাল মেসেজিং অ্যাপে লগইন করে ফেলেছে। টেলিগ্রামে গ্রাহক সংখ্যাও বেড়েছে। সুরক্ষা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় তাই এবার আসরে নেমেছে হোয়াটসঅ্যাপ।

Most Popular