Wednesday, June 23, 2021
HomeEDITOR PICKS' নিদারুণ অর্থসংকটে পড়েছে আইএফএ', বললেন সচিব

‘ নিদারুণ অর্থসংকটে পড়েছে আইএফএ’, বললেন সচিব

 ( 'কি খবর' -এর সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায়  আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় )      

বিশেষ সংবাদদাতা : তাঁকে কেউ কেউ ডাকে স্বপ্নের ফেরিওয়ালা বলে। কেউ বলেন, ম্যান অফ ওয়ার্ক। এটা অস্বীকার করার উপায় নেই, আইএফএ-র বস্তাপচা, ঘুন ধরা চেহারাটা বদলে ঝকঝকে একটা কর্পোরেট লুক আনতে তিনি সক্ষম হয়েছেন। কোভিড -এর নির্মম চাপে অবশ্য বাংলার জীবনের মত ফুটবলও জর্জরিত। সংকটে পড়েছে আইএফএ-ও। বিশাল দেনার দায় নিয়ে সচিবের পদে বসেছিলেন তরুণ এই শিল্পোদ্যোগী জয়দীপ মুখোপাধ্যায়। কিন্তু, সবে যখন তিনি চৌবাচ্চার ছিদ্র মেরামত করে বেনোজল আটকানোর চেষ্টা করছেন, তখনই এল কোভিড। লকডাউন -এর পর লকডাউন। খেলা হলে আয় হয় আইএফএ-র, স্পনসর আসে। জয়দীপ অথবা তাঁর ভাষায় টিম আইএফএ বেশ কিছু স্পনসর এনেছিল। কিন্তু, খেলা না হওয়ায় স্পনসররাও গুটিয়ে গেছে। অথচ আইএফএ-র কর্মীদের বেতন আছে, অফিস চালানোর খরচ আছে, বিদ্যুৎ, ইন্টারনেট -এর ব্যায় আছে। সব মিলে ব্যায় আছে, আয় নেই। দুয়ের ভারসাম্য রাখতে এখন আইএফএ-র নাভিশ্বাস।


কি খবর — ফুটবলে আনলক কীভাবে হবে?
সচিব — আমরা তো কেউ জ্যোতিষী নই যে নির্ধারিতভাবে বলব কোভিড কবে চলে যাবে। তবে, জুনের মধ্যে যদি কোভিড মুক্ত হওয়া যায় তাহলে অগাস্ট -এ ফুটসল দিয়ে খেলা আবার শুরু হবে। তারপর জেলা লিগ। এরপরই কলকাতা লিগ।


কি খবর — ফুটসলে কারা খেলবে?
সচিব –– ষোলোটা দল নিয়ে ফুটসল হবে। প্রিমিয়ার -এর দলগুলি খেলবে। দল কম হলে পর্যায় অনুযায়ী প্রিমিয়ার- বি থেকেও টিম আসবে।

কি খবর — আইএফএ-তে আপনার আমলে প্রথম ইভেন্ট হয়েছে। ইভেন্ট থেকে আয়ও হয়েছে। কোনও নতুন ইভেন্ট?
সচিব — ইচ্ছা আছে অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান করার। আমার ব্যক্তিগত ইচ্ছা ফুটবল গুরুদের নিয়ে একটা দ্রোণাচার্য অ্যাওয়ার্ড করার। গুরুরা তো যবনিকার আড়ালেই থেকে যান।


কি খবর — রাজ্য সরকার কীভাবে পাশে থাকে?
সচিব — অস্বীকার করব না ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস সবসময় আইএফএ-র পাশে থাকেন। আমার ওঁর কাছে একটাই অনুরোধ, আইএফএ মানেই বাংলার ফুটবল। আইএফএ দল যখন যেতে বাংলা নামেই জেতে, হারলে বাংলা নামেই হারে। তাই, একটা মাঠ দেওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি ওঁকে। বাংলার ছেলেরা মাঠের অভাবে ঘুরে বেড়াবে, এটা উনিও চাইবেন না। একটা মাঠ পেলে অনেক পরিকল্পনা রূপায়িত করা যায়।

Most Popular