Wednesday, June 23, 2021
HomeEDITOR PICKSমুকুল রায়কে নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিলীপের, দলকে আবর্জনা মুক্ত করার আবেদন বৈশালীর

মুকুল রায়কে নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিলীপের, দলকে আবর্জনা মুক্ত করার আবেদন বৈশালীর

নিজস্ব সংবাদদাতা : ‘‘আমাদের দলের অনেক কর্মী ঘরছাড়া, সকলকে শান্তিতে বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়াই এখন কাজ, কে গেল, কে এল, তা নিয়ে ভাবতে চাই না।” মুকুল রায়ের তৃণমূলে ফেরা নিয়ে বিশেষ মন্তব্য করতে চাইলেন না বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

শুক্রবার বনগাঁয় বিজেপি-র সাংগঠনিক জেলার বৈঠকে উপস্থিত হয়েছিলেন তিনি। বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা ছিল বনগাঁ সাংগঠনিক জেলার ৬ বিধায়ক ও সাংসদ শান্তনু ঠাকুরের। কিন্তু বৈঠকে আসেননি সাংসদ শান্তনু। অনুপস্থিত ছিলেন ৬ বিধায়কের ৩ জন। এঁদের অনুপস্থিতিতেই বৈঠক শুরু করে দেন দিলীপ ঘোষ।

পরে বেরিয়ে এসে বলেন, ”কিছু কিছু লোক ভোটে জেতার জন্য বিধানসভার আগে এসেছিলেন। এর পর বিভিন্ন অভিযোগ নিয়ে বেসুরো হয়েছেন। তাঁদের জন্য দলের কোনও ক্ষতি হবে না। দলের সম্পদ দলের কর্মীরা। তাঁরা সঙ্গে আছেন।”

এদিকে ফেসবুকে পোস্ট করে দলের পরিষদীয় দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর কাছে বিজেপি-কে আবর্জনা মুক্ত করার আবেদন জানালেন বালিতে বিজেপি-র টিকিটে নির্বাচন লড়া বৈশালী ডালমিয়া। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও সম্প্রতি গেরুয়া শিবিরের সমালোচনা করেছেন ফেসবুক, টুইটারে। তার আগে থেকেই রাজীবের বিরুদ্ধে ঘনিষ্ঠমহলে সরব হন বৈশালী।

তিনি এমনটাও বলেন যে, ”আমি তো তবু হাজার পাঁচেক ভোটে হেরেছি। আর যিনি নিজেকে বড় নেতা মনে করেন তাঁর হারের ব্যবধান ৪০ হাজারের বেশি।” বালি-সহ হাওড়া জেলার সব আসনে বিজেপি-র ভরাডুবির জন্যও রাজীবকে দায়ী করেন বৈশালী।

রাজ্য বিজেপি-র একাংশের মতে মুকুল রায়ের তৃণমূলে ফেরার দিনে বৈশালীর এই বক্তব্য আসলে ডোমজুড়ের প্রার্থী তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীবের বিরুদ্ধে। তিনি বলতে চেয়েছেন, তৃণমূলে যোগ দেওয়ার আগেই যাঁরা চলে যেতে পারেন, তাঁদের বহিষ্কার করুক বিজেপি।

Most Popular